১৬ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
৩০শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ
৮ই রজব, ১৪৪৪ হিজরি

    সর্বশেষ খবর

    ফিলিপাইনের দক্ষিণাঞ্চলে বন্যায় মারা গেছেন ১১;  নিখোঁজ ১৯ জন

    ফিলিপাইনের দক্ষিণাঞ্চলে বন্যায় মারা গেছেন ১১ জন।  নিখোঁজ রয়েছেন অন্তত ১৯ জন। প্রায় এক সপ্তাহ ধরে বৃষ্টির ফলে সৃষ্ট বন্যায় দেশটির দ্বীপভূখণ্ড মিন্দানাওয়ের বিভিন্ন গ্রাম ও শহরে এ বন্যা দেখা দেয়।

    ফিলিপাইনের আবহাওয়া দপ্তরের কর্মকর্তারা জানান, এক সপ্তাহের ভারি বৃষ্টিপাতে মিন্দানাওয়ের নদী-নালা ও অন্যান্য জলাশয় প্লাবিত হয়ে যায়। রোববার  দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় এলাকাগুলোতে বন্যা শুরু হয়।

    বন্যার পানিতে ডুবে জিংগুগ শহরের পার্শ্ববর্তী ক্ল্যারিন, জিনামেজ ও তুদেলা এলাকায় ৭ জন মারা যান। তাছাড়া বন্যার পানিতে নৌকাডুবে মিন্দানাও দ্বীপপুঞ্জের লেইতে মারা যান  ৪ জন ।

    ঝড়ো আবহাওয়া ও প্রবল ঢেউয়ে মিন্দানাওয়ের দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর জামবোয়ানগার উপকূলে দুটি মাছধরা নৌকা ডুবে যায়। নৌকা দুটি গভীর সমুদ্র থেকে তীরের দিকে ফিরছিল। নৌকা দুটিতে মোট ৪৩ জন মৎসজীবী ছিলেন। তাদের মধ্য থেকে ২৩ জনকে জীবিত উদ্ধার করা হয় এবং  ১৯ জন এখনও নিখোঁজ রয়েছেন বলে জানায় ফিলিপাইনের কোস্টগার্ড বাহিনী।

    মিন্দানাওয়ের মিসামিস অক্সিডেন্টাল প্রদেশের গভর্নর হেনরি ওয়ামিনাল জানান, ওরোকুইয়েটাসহ প্রদেশের অধিকাংশ গ্রাম ও শহর বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে। এখন পর্যন্ত দ্বীপটির বিভিন্ন অঞ্চল থেকে প্রায় ৪৬ হাজার মানুষকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেয়া হয়।

    ‘বন্যার পানি ঢুকেছে ওরোকুইয়েটাতে প্রায় সব প্রতিষ্ঠান ও বাড়ি-ঘরে । অধিকাংশ এলাকা বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে এবং টেলিফোন-মোবাইল ফোনের নেটওয়ার্ক পাওয়া যাচ্ছে না।’

    জিংগুগ শহরের কোস্টগার্ড কর্মকর্তারা জানান, সোমবার থেকে বৃষ্টি থামলেও, পানি সরেনি। শহরের অধিকাংশ এলাকায় এখনও বুক সমান পানি রয়েছে।

    জিংগুগ শহরের প্রায় ৪৫ হাজার ৭০০ মানুষের মধ্যে গেল সাত দিনে তাদের ৩৩ হাজার মানুষকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিয়েছেন কোস্টগার্ডের সদস্যরা।

    মাহফুজা ২৮-১২

    আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
    আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে পাশে থাকুন

    Latest Posts

    spot_imgspot_img

    আলোচিত খবর