২২শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
৫ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ
১৪ই রজব, ১৪৪৪ হিজরি

    সর্বশেষ খবর

    তুষারপাতে বিপর্যস্ত যুক্তরাজ্যে ও যুক্তরাষ্ট্র; বিমানবন্দরের ফ্লাইট বাতিল

    শীতকালিন তুষারঝড়ের কারণে গেল দুই দিনে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে চার হাজার ৪০০ ফ্লাইট বাতিল করেছে কর্তৃপক্ষ। রয়টার্স জানায় খবরটি।

    ফ্লাইট ট্র্যাকিং ওয়েবসাইট, ফ্লাইটওয়্যারের তথ্য বলছে, বৃহস্পতিবার বাতিল করা হয়েছে ২ হাজার ৩৫০টি ফ্লাইট। শুক্রবার আরও ২ হাজার ১২০টি ফ্লাইট বাতিলে তালিকায় রয়েছে। এদিকে, যুক্তরাষ্ট্রের রেলপথ কর্তৃপক্ষ ডজনখানেক ট্রেন চলাচল বাতিল করেছে। এতে বড়দিনের ছুটিতে বাড়িতে যাওয়া লোকজনের ভ্রমণে বিঘ্ন ঘটছে।

    এ ছাড়া বৃহস্পতিবার দেরিতে বিমানবন্দর ছেড়ে গেছে আরও ৮ হাজার ৪৫০টি ফ্লাইট। এসব ফ্লাইটের বেশিরভাগই পরিচালনা করে আমেরিকান এয়ারলাইনস, ইউনাইটেড এয়ারলাইনস এবং দক্ষিণ-পশ্চিম এয়ারলাইনস।

    দক্ষিণ-পশ্চিম এয়ারলাইনস কর্তৃপক্ষ বৃহস্পতিবার, ৮৬৫টি ফ্লাইট বাতিল করে এবং শুক্রবারও সেই তালিকায় রয়েছে ৫৫০টি।

    বৃহস্পতিবার ফেডারেল এভিয়েশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশন জানায়, শীতকালিন ঝড়ের কবলে পড়েছে মধ্যপশ্চিম অঞ্চল এবং শিকাগো, ডেট্রয়েট এবং মিনিয়াপলিসে ভ্রমণ ব্যাহত হওয়ার শঙ্কা রয়েছে।

    ডেলটা এয়ারলাইনস ১৪০টি ফ্লাইট বাতিল করেছে এবং শুক্রবারও আরও ৯০টি ফ্লাইট সেই তালিকায় আছে।

    রেলপথ কর্তৃপক্ষ অ্যামট্র্যাক জানিয়েছে, মিশিগান, ইলিনয় ও মিসৌরি অঙ্গরাজ্যে এবং নিউইয়র্ক ও শিকাগোর মধ্যে চলাচলকারী ট্রেনসহ আবহাওয়া পরিস্থিতির কারণে মধ্যপশ্চিমে কয়েক ডজন নির্ধারিত ট্রেন চলাচল বাতিল করা হয়েছে।

    পরিবহনের নিরাপত্তাবিষয়ক প্রশাসন বলছে বুধবার থেকে গত ৭ দিনে এ পর্যন্ত যাত্রী সংখ্যা ১ কোটি ৬২ লাখ এবং ২০১৯ সালে করোনার আগে এ সময়ে যাত্রী সংখ্যা ছিল ১ কোটি ৬৫ লাখ।

    গত বছরও ছুটির সময় কর্মীদের মধ্যে করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় এয়ারলাইনস কর্তৃপক্ষগুলো হাজার হাজার ফ্লাইট বাতিল করতে বাধ্য হয়।

    তুষারপাত ও ভারি কুয়াশায় বিপর্যস্ত যুক্তরাজ্যে বিঘ্নিত হচ্ছে বিভিন্ন বিমানবন্দরের ফ্লাইট। খারাপ আবহাওয়ার কারণে রোববার রানওয়ে বন্ধ করতে বাধ্য হয় স্ট্যানস্টেড ও গ্যাটউইক বিমানবন্দর।

    স্ট্যানস্টেড বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ রোববার রাতে তুষার সরিয়ে ফেলার জন্য রানওয়ে বন্ধ করা এবং সব ফ্লাইট স্থগিত করার কথা জানায়।

    এর কয়েকঘন্টা পর ফ্লাইট আবার চালু হলেও সোমবার নাগাদ অনেক ফ্লাইটই বিলম্বিত হয়েছে কিংবা বাতিল হয়ে গেছে।

    বিবিসি জানায়, রোববার মধ্যদুপুর এবং মধ্যরাতের মধ্যে গ্যাটউইক বিমানবন্দরের প্রায় ৯০ টি ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে। আর সোমবার বাতিল হয়েছে আরও অন্তত ৩৭ টি ফ্লাইট।

    ওদিকে, হিথ্রো বিমানবন্দরে রোববার বাতিল হয়েছে ৫০ টিরও বেশি ফ্লাইট। সবচেয়ে বেশি বিঘ্নিত হয়েছে ইজি জেট এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট।

    হিথ্রো, গ্যাটউইক এবং মানচেস্টার বিমানবন্দরের অনেক ফ্লাইটে বিলম্বও হয়েছে। ব্রিটিশ এয়ারওয়েজ হিথ্রোর বৃহত্তম এয়ারলাইন। ফ্লাইটে বিলম্বের কারণে তারা যাত্রীদের কাছে ক্ষমা চেয়েছে।

    সোমবার ব্রিটিশ এয়ারওয়েজের ৭০ টিরও বেশি ফ্লাইট বাতিল হয়েছে। যাদের ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে তাদের অর্থ ফেরত দেওয়া হচ্ছে কিংবা পুনরায় বুকিং এর সুযোগ দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া, প্রয়োজনে রিফ্রেশমেন্ট এবং হোটেল ভাউচারও দিচ্ছে তারা।

    লুটন বিমানবন্দরে প্রায় দুই ডজন ফ্লাইট বাতিল হয়েছে। লন্ডন সিটি বিমানবন্দরেও ফ্লাইট ব্যাহত হচ্ছে। বৈরী আবহাওয়ার কারণে স্কটল্যান্ড, লন্ডন এবং দক্ষিণ-পশ্চিম ইংল্যান্ডের জন্য একটি হলুদ সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

    খারাপ আবহাওয়ার কারণে দ্রুতগতির ট্রেন ছেড়ে যেতেও বিলম্ব হচ্ছে। সড়ক তুষারের স্তূপে পিচ্ছিল হওয়ায় একাধিক মোটরগাড়ি দুর্ঘটনার পর চালকদের সতর্ক থেকে গাড়ি চালানোর পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

    যাত্রীদের নিজ নিজ ফ্লাইটের বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে জানতে বিমান সংস্থার সঙ্গে যোগাযোগের পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।

    মাহফুজা ২৩-১২

    আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
    আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে পাশে থাকুন

    Latest Posts

    spot_imgspot_img

    আলোচিত খবর