৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
২০শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
১৯শে শাওয়াল, ১৪৪৩ হিজরি

    সর্বশেষ খবর

    জমি বিক্রি করে নায়িকা হওয়ার স্বপ্ন পুরণ হলো নিপার

    ৯০ দশকের সিনেমা দেখে নায়িকা হওয়ার স্বপ্ন দেখেন।  কিন্তু চাইলেই কি নায়িকা হওয়া যায়। কিভাবে নায়িকা হবেন খুঁজতে থাকেন সে পথ। বাড়ি থেকে কোন ভাবেই পেরে উঠছেন না । নায়িকা হওয়ার জন্য ১৫ বছর আগে বাড়ি ছাড়েন । আজ তার সে স্বপ্ন পুরন হতে চলছে ‘বড্ড ভালবাসি ’ সিনিমা মুক্তি পাওয়ার মধ্য দিয়ে।  এতক্ষণ বলছিলাম  নবাগত নায়িকা সুলতানা রোজ নিপার কথা।

    চলচ্চিত্রের শীর্ষ অভিনেত্রী হওয়ার জন্য ছোটবেলায় চট্টগ্রামের আনোয়ার এলাকায় বাসা ছেড়েছিলেন সুলতানা রোজ নিপা। নায়িকা হয়ে দেশে ফেরার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। তিনি গত ১৫ বছর ধরে নায়িকা হওয়ার চেষ্টা করেছেন কিন্তু বারবার ব্যর্থ হয়েছেন।

    ‘টাকা বড় না শিক্ষা বড়’, ‘বাবার প্রতিশোধ’, ‘আমাদের বাড়ি’, ‘টাইটানিক’সহ অনেক ছবিতে অভিনয় করলেও আলোর মুখ দেখেননি সে সব ছবি। হতাশ হয়ে নিপা তার পৈত্রিক সম্পত্তি বিক্রি করে দেয়। এদিক ওদিক ম্যানেজ করে ৮৬ লাখ টাকা খরচ করে নিজেই প্রযোজক হওয়ার উদ্যোগ নেন । আসছে ঈদে নীপার নায়িকা হওয়ার স্বপ্ন পূরণ হতে যাচ্ছে। তিনি বলেন, অনেক কাঠখড় পুড়িয়ে তিনি নায়িকা হয়েছেন। তার অভিনীত সিনেমার নাম জুয়েল ফারসি পরিচালিত ‘বড্ড ভালোবাসি’।

    তিনি বলেন, তিনি নায়িকা হওয়ার জন্য জোর দিয়েছিলেন। সেই জেদ পূরণ করা। ১৫ বছর পর ঈদে দেশে ফিরছেন সুলতানা রোজ নিপা। নীপার সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা বলার সময় তার কথাগুলো শুনে মনে হলো সিনেমার গল্প! কথোপকথনের সময় তিনি অনেক কথা না লিখতে অনুরোধ করেন।

    সুলতানা রোজ নিপা চ্যানেল বলেন, নায়িকা হওয়ার জন্য তিনি যে পরিমাণ কাজ করেছেন তা ‘অন রেকর্ড’ বলা যাবে না। কিছুই লাভ হয়নি। পরে আমি নিজেই নির্মাণ করি ‘বড্ড ভালোবাসি’। আমি পুরো ছবির মালিক।

    আগামীতে তার প্রযোজক সমিতির নির্বাচনে অংশ নেওয়ার ইচ্ছা আছে বলে জানান এই নবাগত। সে কারণেই ছবি মুক্তি দিচ্ছেন তিনি। তিনি আরও বলেন, তার ‘বড্ড ভালোবাসি’ ছবির বেশির ভাগ শিল্পীই কলকাতার। প্রথমে কলকাতায় ছবিটি মুক্তি দিতে চেয়েছিলেন নিপা। তিনি বলেন, আমার বাবার মৃত্যুর পর তাকে কলকাতায় মুক্তি দেওয়া সম্ভব হয়নি। পরে মহামারি বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়ায় । এই ঈদে মুক্তি দিচ্ছি। গোলুই, বিদ্রোহী, এসবের আগে এই ছবি মুক্তি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। কিন্তু মুক্তির পরও ‘ফিল্ম পলিটিক্স’-এ পড়েছি।

    ঈদের সাত দিন বাকি থাকলেও নীপা জানেন না তার ‘বড্ড ভালোবাসি’ কয়টি সিনেমা মুক্তি পাচ্ছে। ওই ব্যক্তিদের নাম প্রকাশ করতে না চাইলেও তারা কাকরাইলের গ্রুপ বলে জানান তিনি। তিনি আমাকে প্রলুব্ধ করে রাজনীতি করছেন। তারা সিনেমার মানুষ। শুরুতেই বলা হয়েছিল আমার ছবি সুন্দর পরিবেশন করবে। কিন্তু গত কয়েকদিন ধরে তিনি আমাকে মুক্তি না দেওয়ার চেষ্টা করছেন। তারা বলছেন, ঈদের পর কোটি কোটি টাকা বিতরণ করবেন! আমাকে অন্য ছবিতে কাজ করার সুযোগ দিন। ছবি মুক্তির ফাঁদে পা দিতে চাই না! গত তিন বছর ধরে অপেক্ষায় ছিলাম ঈদে মুক্তি পাওয়ার জন্য। দু-চারটি সিনেমা হল পেলেও মুক্তি দেব।

    ‘বড্ড ভালোবাসি’ প্রসঙ্গে নবাগত এই নায়িকা বলেন, ছবিগুলো নব্বই দশকের স্টাইলে তৈরি। কারণ তখন মানুষ বেশি ছবি দেখত। সে সময়ের ছবি দেখে আমারও নায়িকা হওয়ার আগ্রহ তৈরি হয়। আমি বিশ্বাস করি যে দর্শকরা ৯০ এর দশকে ছবি দেখতে পছন্দ করতেন তারা হলে গিয়ে আমার এই ছবিটি দেখবেন। আমি এখানে একটি দ্বৈত চরিত্র করেছি। ঝুঁকি নিয়ে কাজ করেছি। আমি শারীরিক, মানসিক এবং আর্থিক সব দিক থেকে ‘খারাপ প্রেম’ করতে সংগ্রাম করেছি। তাই এই ছবিটি আমার কাছে সবচেয়ে দামি। এজন্য আমার খরচ হয়েছে ৮৬ লাখ টাকা। এখনও একটি পয়সা আয় বা স্পনসর পিইনি।

    সুলতানা রোজ নিপা বলেন, কোনো কোনো ক্ষেত্রে তা মৌখিক হয়েছে। হয়তো কালই জানতে পারবো আমি কতটা পাচ্ছি।

    নিপার কাছে প্রশ্ন ছিল, ছবির জন্য বিনিয়োগ করা এই ৮৬ লাখ টাকা কোথায় পেলেন? জবাবে নিপা জানালেন ‘তার বিউটি পার্লারের ব্যবসা আছে, একটু গার্মেন্টস ব্যবসা ।  পারিবারিক জমি ছিল তা বিক্রি করে ছবি বানিয়েছেন। এই ছবি করতে গিয়ে অনেকেই আমাকে ঠকিয়েছেন। বাধ্য হয়ে তাদের নামও বলতে পারছি না। যারা আমাকে প্রতারণা করেছে তাদের বিচার আমি আল্লাহর উপর ছেড়ে দিয়েছি। আর নিজের টাকায় ছবি বানাবো না। এতদিন লড়াই করেও মনের মতো শান্তিতে কাজ করতে পারিনি। তবে কেউ যদি আমাকে নায়িকা হিসেবে নেয় তা হলে কাজ করব।

    প্রসংগত, বাংলাদেশে চলচ্চিত্রে অনেক গুনী ও দক্ষ অভিনেত্রীরা আগেও ছিলেন এবং এখনও আছেন। চলচ্চিত্রে তাদের অবদান আপরীসিম। তবে অভিনেত্রী হতে যেয়ে মেয়েদের অনেক হয়রানির শিকার হতে হয় আর এমন খবর প্রায় শুনা যায়। দুষ্ট মানুষের অসৎ উদ্দেশ্যই অনেক অভিনেত্রীর নায়িকা হবার স্বপ্নকে ধ্বংস করে দেয় চিরতরের জন্য। নব্বইয়ের দশকের চলচ্চিত্রের মধ্যে অন্যরকম একটি সভ্যতা ছিলো কিন্তু বর্তমান চলচ্চিত্রে সেই সভ্যতার পরিমাণ দিন দিন হ্রাস পাচ্ছে।

    আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
    আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে পাশে থাকুন

    Latest Posts

    spot_imgspot_img

    আলোচিত খবর