২রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
১৬ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
১০ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

    সর্বশেষ খবর

    নিজের জমিতে হাট বাজার বসালেও সরকার নিয়ে নেবে (ভিডিও সহ)

    নিজের জমিতেও যদি কেউ হাট বাজার বসায় সরকার তা খাস জমি ঘোষণা করে নিয়ে নিবে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব ড. খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম।মন্ত্রিপরিষদের বৈঠক শেষ সাংবাদিক তিনি এ কথা জানান। তিনি বলেন, সরকারের অনুমোদন ছাড়া কোনো হাট-বাজার বসানো যাবে না। স্থানীয় হাট-বাজারের জন্য জেলা প্রশাসকের অনুমতি লাগবে।আইন অনুযায়ী কেউ সরকারি খাস জমিতে হাট-বাজার স্থাপন করলে সর্বোচ্চ পাঁচ বছরের কারাদণ্ড বা এক লাখ টাকা জরিমানা বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন। এমন বিধান রেখে হাট ও বাজার (স্থাপন ও ব্যবস্থাপনা) আইন, ২০২২ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

    মন্ত্রিপরিষদ সচিব ড. খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন‘এটা ১৯৫৯ সালের একটা অর্ডিন্যান্স ছিল, । এটাকে যুগোপযোগী করে আইন বানানো হয়েছে। এখানে প্রায় ২৬টি ধারা আছে। এই আইনের বিধান ছাড়া কোথাও কোনো হাট-বাজার বানানো যাবে না। হাট-বাজার যদি বানানো হয় তাহলে সরকার খাস জমি হিসেবে নিয়ে নেবে।’

    উদাহরণ দিয়ে আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, হাট-বাজার নিয়ে মোহন মিয়ার একটি মামলা ছিল সরকারের সঙ্গে। উনি তখন কোর্টে গিয়ে জিতলেন যে, এটা আমার ব্যক্তিগত হাট-বাজার; এটা খুব বিখ্যাত একটি মামলা। পরবর্তীতে সরকার ডেফিনিশন পরিবর্তন করে বললো যে, যেখানেই কেউ হাট-বাজার বসাবে, সেটা খাস জমি হয়ে যাবে। এখনো সরকারের পারমিশন ছাড়া কোনো হাট-বাজার বসানো যাবে না। এখানেও আগের ডেফিনিশন স্ট্যান্ড করবে। এটা সরকারের পক্ষ থেকে জেলা প্রশাসক অনুমতি দেবেতিনি বলেন, হাট-বাজারের কোনো জমি স্থায়ী বন্দোবস্ত করা যাবে না। তবে এ সংক্রান্ত বিধিমালা অনুসরণ করে জেলা প্রশাসক অস্থায়ীভাবে একজনের বিপরীতে সর্বোচ্চ আধা শতক জায়গা প্রদান করতে পারবেন। এর বেশি একজনকে দেওয়া যাবে না।

    মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, বছরে যদি একদিন হাট-বাজার বসে সেটা অন্য কথা বা কেউ যদি মেলা বসায়; কিন্তু স্থায়ীভাবে হাট-বাজার হিসেবে যদি বসে তাহলে সরকার এটা নিয়ে নেবে।

    আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
    আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে পাশে থাকুন

    Latest Posts

    spot_imgspot_img

    আলোচিত খবর