৯ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
২২শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
১৩ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

    সর্বশেষ খবর

    মেধাবীদের রাজনীতিতে আসা প্রয়োজন : তথ্যমন্ত্রী

    আলোচিত ডেস্ক : রাজনীতি থেকে মেধাবীরা দূরে সরে যাচ্ছে। মেধাবীরা রাজনীতিতে না আসায় মেধাহীনরা রাজনীতির মঞ্চ দখল করছে বলে মন্তব্য  করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ডক্টর হাছান মাহমুদ। আজ বৃহস্পতিবার ১৯ অক্টোবর দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে ঢাকা সাব-এডিটরস কাউন্সিলের সদস্যদের সন্তানদের দেয়া মেধাবৃত্তি ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

    তথ্যমন্ত্রী আরো বলেন, ‘আমরা কেউ রাজনীতি বাইরে নই। কেউ রাজনীতি না করলেও রাজনীতির প্রভাব প্রত্যেকের জীবনে আছে। সে জন্য আমি মনে করি, আমাদের শিশুদের ভবিষ্যত বাংলাদেশের কর্ণধরদের সঠিকভাবে বেড়ে ওঠার জন্য সুস্থ রাজনীতি দেশে দরকার। অসুস্থ রাজনীতি সমাজকেও অসুস্থ করে দেয়। সহিংসতার রাজনীতি এবং সব কিছুকে উড়িয়ে দেয়ার রাজনৈতিক যে সংস্কৃতি আমরা চালু করেছি এটি পুরো রাজনীতিকে অসুস্থ করে দিচ্ছে।’

    ‘সেটি আমাদের সমাজের ওপর প্রভাব ফেলছে এবং আজকে যারা নতুন প্রজন্ম, ভবিষ্যতে দেশ চালাবে তাদের ওপরও প্রভাব ফেলছে। আরেকটি বড় বিষয় হচ্ছে, রাজনীতিতে মেধাবীরা আসছে না।’ আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জ্ঞান অর্জনে উৎসাহ দেন জানিয়ে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর উৎসাহ না থাকলে তার পিএইচডি করা হতো না বলেও জানান তথ্যমন্ত্রী।

    তিনি আরও বলেন, ‘মেধাবীরা না এলে যারা সুযোগ-সন্ধানী তারা রাজনীতিতে জায়গা করে নেয়। আজকে দুঃখজনক হলেও সত্য যে, রাজনীতি যে একটি ব্রত, দেশ সেবা-সমাজে সেবা, দেশ পরিবর্তন, সমাজ পরিবর্তন, সমাজ উন্নয়ন, রাষ্ট্র উন্নয়ন রাজনীতি যে পেশা নয়, এটি একটি ব্রত সেটাই অনেক রাজনীতিবিদ জানে না।’

    আগামী নির্বাচনের পরে আবারও তীব্র আন্দোলন গড়ে তোলা হবে শিগগিরই বিএনপির পক্ষ থেকে ঘোষণা আসবে বলেও এ সময় মন্তব্য করেন তিনি।

    তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘গতকাল ঢাকায় দুটি বড় সমাবেশ হয়েছে এবং দুটি সমাবেশের মধ্যে দূরত্ব ছিল মাত্র দুই কিলোমিটার। ঢাকা শহরে বিন্দুমাত্র কোনো গণ্ডগোল হয়নি। রাজনীতির চর্চাটা তেমনই হওয়া প্রয়োজন কিন্তু নয়াপল্টনের সামনে সমাবেশ থেকে বলা হলো, ২৮ তারিখ তারা সমাবেশ করবেন, তখন থেকে সরকারের পতনের যাত্রা শুরু হবে।’

    ‘মানুষ হাস্যরস করে বলে, এটা এবারের ২৮ তারিখ নাকি আগামী বছরের ২৮ তারিখ নাকি তার পরের বছরের ২৮ তারিখ। আজকে নাকি ২৮ অক্টোবরের আগেই সরকারকে পদত্যাগ করার আহ্বান জানিয়েছে। বিএনপি কিছু দিন আগে বলেছিল, অক্টোবর মাসে ফাইনাল খেলা। আমরা আশা করেছিলাম, অক্টোবর মাসের শুরুতে তারা ফাইনাল খেলার দিন-তারিখ ঘোষণা করবে। তারপর বললো যে, পূজার পরে। এখন দেখলাম, সেটি ২৮ অক্টোবর নিয়ে গেছে। খুব সহসা, ২৮ অক্টোবর তারা নির্বাচনের পরে আন্দোলনের ঘোষণা দেবে।’

    তিনি আরও বলেন, ‘আগামী নির্বাচনের পরে বিএনপি আবার একটা আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষণা আগামী ২৮ তারিখ দেবে বলে মানুষ ধারণা করছে। কারণ গত প্রায় ১৫ বছর ধরে আমরা এই আন্দোলনের হুমকির মধ্যে আছি। বাস্তবতা হচ্ছে, বিএনপি কর্মী ছাড়া জনগণের সম্পৃক্ততা সেখানে নেই।’

    ফিলিস্তিনের ঘটনায় প্রতিবাদ না জানানোর কারণে বিএনপির সমালোচনা করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এটি দুঃখজনক এবং এটির প্রতিবাদ না জানিয়ে বিএনপি কার্যত এই বর্বরতার পক্ষ অবলম্বন করেছে।’

    অ্যাডভোকেট বলরাম পোদ্দার বলেন, নিজেদেরকে যোগ্য করে গড়ে তোলার মাধ্যমে সমাজ পরিবর্তনে এগিয়ে আসতে হবে। উদ্যোগ নিতে হবে নিজেদের অঙিনা থেকে। তিনি সবাইকে ভালো ফলাফল করার জন্য শুভেচ্ছা জানান।

    ঢাকা সাব-এডিটরস কাউন্সিলের সভাপতি মামুন ফরাজীর সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসান হৃদয়ের সঞ্চালনায় আরো উপস্থিত ছিলেন পাওয়ার সেলের মহাপরিচালক প্রকৌশলী মোহাম্মদ হোসাইন, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শ্যামল দত্ত, ডিএসইসির সাবেক সভাপতি কায়কোবাদ মিলন, শাহ মোহাম্মদ মোতাছিম বিল্লাহ, কে এম শহীদুল হক, নাসিমা আক্তার সোমা,জাকির হোসেন ইমন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক সুমন ইসলামসহ অন্যরা। অনুষ্ঠানে ২৬ জন কৃতি শিক্ষার্থীকে ক্রেস্ট, সংবর্ধনা ও আর্থিক অনুদান দেয়া হয়।

    আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
    আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে পাশে থাকুন

    Latest Posts

    spot_imgspot_img

    আলোচিত খবর