১০ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
২৩শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
১৩ই শাবান, ১৪৪৫ হিজরি

    সর্বশেষ খবর

    গুলশানের আগুন নিয়ন্ত্রনে; এক ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার

    স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগের সচিব আবদুল্লাহ মাসুদ চৌধুরী জানান গুলশান-২ নম্বরে একটি আবাসিক ভবনে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে । তিনি আরো বলেন, রাত ১১টায় আগুন সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে আসে  এবং উদ্ধারকারী টিম ভেতরে কাজ করছে। মোট ১৯টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রনে আনতে কাজ করে ।

    এরইমধ্যে ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধারকারী দল ভবনের ভেতরে প্রবেশ করেছে। আগুনের তীব্রতা থেকে বাঁচতে অনেকেই ভবনের ছাদে অবস্থান নেয় ।

    ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ মাইন উদ্দিন জানান, আগুন লাগার কারণ এখনও জানা যায়নি।

    আগুনের ঘটনায় এক ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।  লাফিয়ে পড়ে ওই ব্যক্তির মৃত্যু হয় বলে জানান ঢামেক হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক। নিহত ব্যক্তির নাম-পরিচয় এখনো জানা যায়নি। এছাড়া আহত আরও তিনজনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

    রোববার রাত ১০টায় তার মরদেহ উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে আসা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেন ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া।

    ভবন থেকে লাফিয়ে পড়ে অন্ততপক্ষে চারজন আহত হন। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ওই ভবন থেকে একজন পুরুষ, দুইজন নারী ও এক শিশু লাফিয়ে পড়েন।

    আগুন লাগা আবাসিক ভবন থেকে এখন পর্যন্ত এক শিশুসহ মোট ২২ জনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে ।  এর মধ্যে নারী ১৭ জন ও পুরুষ ৪জন। এছাড়া আটকে পড়া অন্যদের উদ্ধারে ফায়ার সার্ভিস কাজ করছে। ঘটনাস্থলে মোতায়েন রাখা হয়েছে একাধিক অ্যাম্বুলেন্স।

    ফায়ার সার্ভিসের ডিউটি অফিসার খালেদা ইয়াসমিন জানান রোববার  সন্ধ্যা ৭টায়  গুলশান-২ নম্বরের ১০৪ নম্বর রোডের ১৪ তলা ভবনের ৭ম তলায় আগুন লাগে । উদ্ধার অভিমানে অংশ নেয় বিমান বাহিনীর একটি দল।

    আবাসিক ওই ভবনে অনেকগুলো পরিবারের বসবাস এবং ভবনের বিভিন্ন তলায় অনেকে আটকা পড়েন। আগুন থেকে বাঁচতে ব্যালকনি থেকে কয়েকজনকে লাফিয়ে নিচে নামতে দেখা যায়। ভবনটিতে বসবাসকারীরা জানান, আগুন লাগার পর অনেকেই ভবনের ভেতরে আটকা পড়েন। আগুন লাগার পরপরই ভবন থেকে তাড়াহুড়ো করে অনেকেই নীচে নেমে আসে । রাত সাড়ে ৮টায় আগুনের তীব্রতা কমায়  উদ্ধার অভিযান পরিচালনা শুরু করে সার্ভিসের কর্মীরা।

    আগুন লাগার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম। রাত ৯টা ২০ মিনিটে তিনি ঘটনাস্থলে পৌঁছে উৎসুক জনতাকে নিয়ন্ত্রণ করেন। এ সময় ডিএনসিসি মেয়র হ্যান্ড মাইক দিয়ে ফায়ার সার্ভিসকে কাজের সহযোগিতা করার আহ্বান জানান এবং পুলিশকে ঘটনাস্থল থেকে সবাইকে সরানোর জন্য নির্দেশ দেন।

    ফায়ার সার্ভিস সদরদপ্তরের মিডিয়া সেলের কর্মকর্তা আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, প্রথমে ৬টি, পরে ৭টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করে। কিন্তু আগুনের তীব্রতা বেড়ে যাওয়ায় পরে দুই দফায় আরও ৬টি করে ১২টি ইউনিট কাজে যোগ দেয়। বর্তমানে ১৯টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে।

    মাহফুজা ১৯-২

    আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
    আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে পাশে থাকুন

    Latest Posts

    spot_imgspot_img

    আলোচিত খবর