২১শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
৪ঠা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ
১৩ই রজব, ১৪৪৪ হিজরি

    সর্বশেষ খবর

    লক্ষ্মীপুরে স্বামীকে শ্বাসরোধে হত্যার দায়ে স্ত্রীকে ১০ বছরের কারাদণ্ড

    লক্ষ্মীপুরে স্বামীকে শ্বাসরোধে হত্যার দায়ে স্ত্রীকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এ সময় আদালত আসামিকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছরের সশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দেন।

    এদিকে, একই আদালত অপর একটি হত্যা মামলার পাঁচ আসামিকে (সব আসামি) খালাস দেন।

    সোমবার দুপুরে লক্ষ্মীপুর জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক রহিবুল ইসলাম এ দুই মামলার রায় ঘোষণা করেন। জেলা জজ আদালতের সরকারি কৌঁসুলি (অ্যাডভোকেট জসিম উদ্দিন রায় দুটির বিষয় নিশ্চিত করেন।

    দণ্ডপ্রাপ্ত আমেনা বেগমের বাবার বাড়ি রায়পুর উপজেলার বামনী গ্রামে। তাঁর স্বামী নিহত মো. সহিদ হোসেনের বাড়িও একই এলাকায়।রায় ঘোষণার সময় গৃহবধূ আমেনা বেগম আদালতে উপস্থিত ছিলেন। পরে তাঁকে লক্ষ্মীপুর জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।

    লক্ষ্মীপুর জেলা ও দায়রা জজ আদালতের সরকারি কৌঁসুলি জসিম উদ্দিন বলেন, পারিবারিক কলহের জেরে সহিদ হোসেনকে শ্বাস রোধ করে হত্যা করা হয়েছে। সাক্ষীদের সাক্ষ্য গ্রহণ ও দীর্ঘ শুনানি শেষে আদালত আমেনা বেগমকে এই রায় দিয়েছেন। এ রায়ে রাষ্ট্রপক্ষ সন্তোষ প্রকাশ করেছে। তবে আইন অনুযায়ী, আসামিপক্ষ রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করার সুযোগ পাবে।

    আদালত সূত্র জানা যায়, ২০২১ সালের ২২ মার্চ রাতে লক্ষ্মীপুরের রায়পুরের বামনী গ্রামে পারিবারিক বিরোধের জেরে স্বামী সহিদ হোসেনকে শ্বাসরোধে হত্যা করেন স্ত্রী আমেনা বেগম। বিষয়টি গোপন রেখে স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে বলে জানায় আমেনা। পরে দাফনের জন্য গোসল করাতে নিলে গলায় আঁচড়ের দাগ দেখে সন্দেহ হলে পুলিশে খবর দেন পরিবারের লোকজন। খবর পেয়ে পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। ২০২২ সালের ২৬ এপ্রিল ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনে সহিদকে শ্বাসরোধে হত্যার প্রমাণ পাওয়া যায়।

    ওই ঘটনায় সহিদের বড় ভাই আব্দুল আলী খোকন বাদী হয়ে আমেনা বেগমকে আসামি করে ২০২২ সালের ২৯ এপ্রিল রায়পুর থানায় হত্যা মামলা করেন। একই বছরের ২৩ মে আদালতে তদন্তপত্র দাখিল করে পুলিশ। পুলিশের তদন্ত প্রতিবেদন ও সাক্ষ্যপ্রমাণের ভিত্তিতে আদালত আমেনা বেগমকে ১০ বছরের কারাদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

    অন্যদিকে, লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে পরকীয়ার জেরে নাসরিন সুলতানা নামে এক নারীকে হত্যা করে রাসেল নামে এক যুবক। ঘটনাটি জানাজানি হলে স্থানীয় লোকজন উত্তেজিত হয়ে রাসেলকে এলোপাথাড়ি মারধর করে। এতে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় ২০২১ সালের ১৮ এপ্রিল নাম না জানা ৩০০ জনকে আসামি করে রামগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা করেন রাসেলের স্ত্রী রুমা আক্তার। ২০২২ সালের ২৬ জানুয়ারি মানিক মোল্লা, আব্দুল করিম রিপন, বিল্লাল হোসেন, আবুল খায়ের ও মোহাম্মদ হোসেনকে অভিযুক্ত করে আদালতে তদন্তপ্রতিবেদন দাখিল করে পুলিশ।

    আদালতে দীর্ঘ শুনানি শেষে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় পাঁচ আসামিকে খালাস দেন।

    মাহফুজা ১৬-১

     

     

    আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
    আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে পাশে থাকুন

    Latest Posts

    spot_imgspot_img

    আলোচিত খবর