১৬ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
৩০শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ
৮ই রজব, ১৪৪৪ হিজরি

    সর্বশেষ খবর

    ইজতেমায় প্রথম পর্বে মাওলানা জুবায়ের ও দ্বিতীয় পর্বে মাওলানা সাদের অনুসারীরা অংশ নেবেন-স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

    ইজতেমায় প্রথম পর্বে মাওলানা জুবায়ের ও দ্বিতীয় পর্বে মাওলানা সাদের অনুসারীরা অংশ নেবেন বলে জানালেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল । স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ইজতেমার আয়োজকদের মধ্যে দুই পক্ষই দুইবার ইজতেমা পরিচালনা করেছিল এবং তাদের মধ্যে কোনো ভুল বোঝাবুঝি হবে না।

    শুক্রবার সন্ধ্যায় বিশ্ব ইজতেমার প্রস্তুতি পর্যালোচনা সংক্রান্ত ফলোআপ সভায় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। দুই পক্ষই সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে ইজতেমার কাজ শেষ করবে আশা প্রকাশ করেন আসাদুজ্জামান খান ।

    মন্ত্রী বলেন, ‘বিদেশি মেহমানদের জন্য আগের মতোই সুযোগ সুবিধা থাকবে। প্রথম পর্ব শেষে মেহমানদের  জন্য হাজী ক্যাম্পে থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে এবং সেখানে সিসি টিভি ক্যামেরা বসানো হয়েছে।’

    তিনি বলেন, আমাদের নিরাপত্তা বাহিনী অত্যন্ত চৌকস। সবগুলো বিষয় মাথায় নিয়েই আমরা কাজ করছি। ২০২৩ সালের বিশ্ব ইজতেমা সুন্দর ও সফল হবে। আমরা সবসময় প্রস্তুত রয়েছি। আমাদের প্রধানমন্ত্রী সবসময় বিশ্ব ইজতেমার প্রতি খেয়াল রাখছেন। আরও কী ধরনের সহযোগিতা করা যায় তারও খোঁজখবর নিচ্ছেন তিনি।

    তিনি বলেন, ‘আগামী ১৬ তারিখ যোবায়ের পন্থী অনুসারীদের সকাল ১১টার মধ্যে ইজতেমা মাঠ ত্যাগ করার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।’

    নিরাপত্তার বিষয়ে মন্ত্রী আরো বলেন, ‘সব ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। এবার সাইবার নিরাপত্তার বিষয়ে কাজ করছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। যেখানে ঝুঁকি থাকবে আমাদের পুলিশ বাহিনী সে জায়গাটা কাভার করবে। ইজতেমার নিরাপত্তার জন্য পুলিশ, র্যাব, আনসার সদস্যসহ সবাই যুক্ত থাকবেন। প্রয়োজনে বিজিবি প্রস্তুত থাকবে। সেনাবাহিনী এরই মধ্যে মুসল্লিদের জন্য কাজ করছে। তারা তুরাগ নদীর পশ্চিম পাড়ে ভাসমান সেতু তৈরি করে দিয়েছেন। ইজতেমার ৯৫ ভাগ এরই মধ্যে শেষ হয়েছে।

    সভায় গাজীপুরের জেলা প্রশাসক আনিসুর রহমান ইজতেমা নিয়ে প্রশাসনের গৃহীত ব্যবস্থা বাস্তবায়ন নিয়ে সার্বিক চিত্র উপস্থাপন করেন।

    প্রস্তুতি সভায় আরও বক্তব্য রাখেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল, ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান, গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোল্যা নজরুল ইসলাম, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের ভারপ্রাপ্ত মেয়র আসাদুর রহমান কিরণ, তাবলীগ জামাতের দুই পর্বের শীর্ষ মুরুব্বিসহ সরকারের বিভিন্ন দপ্তরের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

    টঙ্গীর তুরাগ পাড়ে প্রথম দফায় আগামী ১৩ থেকে ১৫ জানুয়ারি আর দ্বিতীয় দফায় ২০ থেকে ২২ জানুয়ারি বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠিত হবে।

    মাহফূজা ৬-১

     

    আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
    আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে পাশে থাকুন

    Latest Posts

    spot_imgspot_img

    আলোচিত খবর