২২শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
৫ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ
১৪ই রজব, ১৪৪৪ হিজরি

    সর্বশেষ খবর

    গাইবান্ধা-৫ আসনে উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মাহমুদ হাসান  নির্বাচিত

    গাইবান্ধা-৫ (সাঘাটা-ফুলছড়ি) আসনে উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মাহমুদ হাসান  বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। নির্বাচনে মোট ১৪৫ কেন্দ্রের ফলাফলে রিপন ৭৮ হাজার ২৮৫ ভোট পেয়ে জয়ী হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জাতীয় পার্টির  অ্যাডভোকেট গোলাম শহীদ পেয়েছেন ৪৪ হাজার ৭৫২ ভোট।

    এ আসনের ফুলছড়ি-সাঘাটা উপজেলার ১৪৫ কেন্দ্রের প্রাপ্ত ফলাফল একযোগে পাওয়ার পর জেলা প্রশাসক কার্যালয় থেকে চুড়ান্ত ফলাফল ঘোষণা করেন রিটানিং কর্মকর্তা মো. ফরিদুল ইসলাম।

    ঘোষিত ফলাফল অনুযায়ী জানা যায়, ফুলছড়ির ৫৭ কেন্দ্রের ফলাফলে নৌকা প্রতীকের মাহামুদ হাসান পান ২৩ হাজার ৭৮৭ ভোট ও তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জাতীয় পার্টির এ এইচএম গোলম শহীদ পেয়েছেন ১২ হাজার ২৯৩ ভোট।, সাঘাটার ৮৮ কেন্দ্রের ফলাফল ঘোষণা করা হয়েছে। এসব কেন্দ্রের ফলাফলে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মাহামুদ হাসান ৫৪ হাজার ৪৯৮ ভোট এবং  জাতীয় পার্টির এএইচএম গোলম শহীদ পেয়েছেন ৩২ হাজার ৪৫৯ ভোট। ফুলছড়ি ও সাঘাটা উপজেলা পরিষদের হলরুম থেকে এই ফলাফল ঘোষণা করেন সহকারী রির্টানিং কর্মকর্তা আবদুল মোত্তালিব ও কামরুল ইসলাম।

    এর আগে, সকাল সাড়ে ৮টায় শুরু হয়ে বিকেল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে একটানা ভোট গ্রহণ চলে।

    দুই উপজেলার ১৭টি ইউনিয়নে মোট ভোটার ৩ লাখ ৩৯ হাজার ৪ জন। এর মধ্যে, নারী ভোটার ১ লাখ ৬৯ হাজার ৮৬২ জন ও পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৬৯ হাজার ১৪২ জন।

    এই নির্বাচনে ৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করলেও ভোটের মাঠে সক্রিয় ছিলেন আওয়ামী লীগের মাহমুদ হাসান রিপন ও জাতীয় পার্টির এএইচএম গোলাম শহিদ রঞ্জু। প্রচারণায় দেখা যায়নি বিকল্পধারা বাংলাদেশের জাহাঙ্গীর আলম ও স্বতন্ত্র প্রার্থী সৈয়দ মাহবুবুর রহমানকে।

    গত ২৫ ডিসেম্বর অপর স্বতন্ত্র প্রার্থী নাহিদুজ্জামান নিশাদ ভোট কারচুপির আশঙ্কায় নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন।

    গাইবান্ধা-৫ আসনের সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী গেল বছরের২৩ জুলাই যুক্তরাষ্ট্রে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। এরপর আসনটি শূন্য ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। আসনটিতে ১২ অক্টোবর উপনির্বাচনের ভোটগ্রহণ চলাকালে প্রথমে গোপন কক্ষে একাধিক ব্যক্তি প্রবেশ করায় ভরতখালী উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্র, ফুলছড়ি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্র এবং সাঘাটা উপজেলার রামনগর উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়। পরবর্তীতে দফায় দফায় ৫১টি কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ স্থগিত করে ইসি।

    অনিয়মের ঘটনা তদন্ত করে প্রতিবেদন দেয়ার জন্য কমিটি গঠন করা হয়। তদন্ত শেষে ৪ জানুয়ারি গাইবান্ধা-৫ আসনের উপ-নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।

    মাহফুজা ৪-১

     

    আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
    আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে পাশে থাকুন

    Latest Posts

    spot_imgspot_img

    আলোচিত খবর