২১শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
৪ঠা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ
১৩ই রজব, ১৪৪৪ হিজরি

    সর্বশেষ খবর

    থার্টি ফার্স্ট নাইটে ফানুস উড়ানো ও আতশবাজি ফোটানোর বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা জারি

    থার্টি ফার্স্ট নাইটে রাজধানীতে ফানুস উড়ানো ও আতশবাজি ফোটানোর বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। কেউ যদি এ নির্দেশনা অমান্য করে তাহলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুক।

    থার্টি ফার্স্ট নাইট উপলক্ষে ঢাকা মহানগরীতে নেয়া সার্বিক নিরাপত্তার বিষয়ে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে ব্রিফ করেন ডিএমপি কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুক।

    থার্টি ফার্স্ট নাইট উপলক্ষে ঢাকা মহানগরীতে নেয়া সার্বিক নিরাপত্তার বিষয়ে সকালে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে ব্রিফ করেন ডিএমপি কমিশনার। সেখানে তিনি নগরবাসীর উদ্দেশে একগুচ্ছ নির্দেশনা দেন, যা না মানলে ব্যবস্থা নেয়ার ঘোষণাও দেন।

    ডিএমপি কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুক বলেন, ডিএমপির থানাগুলোকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে যেন কোনোভাবেই কোনো এলাকায় কেউ ফানুস বিক্রি ও উড়াতে না পারে। এছাড়া সব বার বন্ধ থাকবে ২৪ ঘণ্টা। কোনো উন্মুক্ত স্থানে বা বাড়ির ছাদে কোনো গান-বাজনা করা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ থাকবে। যেকোনো ধরনের ডিজে পার্টি নিষিদ্ধ থাকবে বলেও নির্দেশনা দেয়া হয়।

    ডিএমপি কমিশনার বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় সন্ধ্যা ৬টার পর বহিরাগত কেউ প্রবেশ করতে পারবেন না। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী এবং আবাসিক এলাকায় বসবাসরত শিক্ষক, কর্মকর্তা কর্মচারীরা আইডি কার্ড দেখানো সাপেক্ষে প্রবেশ করতে পারবেন। গাড়ি প্রবেশের ক্ষেত্রে ঢাবির স্টিকার থাকতে হবে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রবেশের ক্ষেত্রে আগের মতো শাহবাগ ও নীলক্ষেত এলাকা ব্যবহার করতে হবে।

    তিনি বলেন, পোশাকে এবং সাদা পোশাকে পর্যাপ্ত পুলিশ থাকবে। নগরজুড়ে থাকবে পর্যাপ্ত চেকপোস্ট। তবে, ইনডোরে বা হোটেলে অনুষ্ঠান করা যাবে। রাত ৮টার পর গুলশান, বনানী এলাকায় প্রবেশ নিয়ন্ত্রণ করা হবে। বেপরোয়া গাড়ি চালকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

    থার্টি ফার্স্ট নাইটে কোনো জঙ্গি হামলার আশঙ্কা বা ঝুঁকি নেই বলেও জানিয়েছেন ডিএমপি কমিশনার।

    ৩১ ডিসেম্বর রাতে রাজধানীতে জনশৃঙ্খলা ও যানবাহন শৃঙ্খলা নিশ্চিতকল্পে কিছু সাময়িক ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণমূলক ব্যবস্থা নিয়েছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) ট্রাফিক-গুলশান বিভাগ।

    গুলশান ট্রাফিক বিভাগের নির্দেশনায় বলা হয়েছে— ৩১ ডিসেম্বর রাত ৮টা থেকে পরদিন ১ জানুয়ারি ভোর ৫টা পর্যন্ত গুলশান, বনানী ও বারিধারা এলাকায় যানবাহনযোগে প্রবেশের জন্য কামাল আতাতুর্ক এভিনিউ (কাকলী ক্রসিং) ও মহাখালী আমতলী ক্রসিং ব্যবহার করা যাবে।

    রাত ৮টা থেকে গুলশান, বনানী ও বারিধারা এলাকায় প্রবেশের ক্ষেত্রে মহাখালী এলাকা-ফিনিক্স রোড ক্রসিং, বনানী ১১ নম্বর রোড, চেয়ারম্যানবাড়ি মোড়, ঢাকা গেট, শুটিং ক্লাব, বাড্ডা লিংক রোড, ডিওএইচএস বারিধারা-ইউনাইটেড হাসপাতাল ক্রসিং ও নতুনবাজার ক্রসিং ব্যবহার করা যাবে না। তবে এসব এলাকা থেকে বের হওয়ার জন্য ক্রসিং ব্যবহার করা যাবে।

    এছাড়া ২১টি পয়েন্টে ডাইভারশন চলবে। সেগুলো হলো— ফিনিক্স ক্রসিং, শান্তা ক্রসিং, বটতলা ক্রসিং, জিএমজি মোড়, পুরাতন আড়ং ক্রসিং, নিকেতন ক্রসিং, পুলিশ প্লাজা ক্রসিং, মসজিদ গ্যাপ, মায়াগঞ্জ ক্রসিং, বনানী চেয়ারম্যানবাড়ি মোড়, বনানী ১১ নম্বর রোড, শুটিং ক্লাব ক্রসিং, ইউনাইটেড হাসপাতাল গ্যাপ, বনানী ২৩ নম্বর রোড, ঢাকা গেট, মানারাত ক্রসিং, নতুনবাজার ক্রসিং, জাতিসংঘ গোলচত্বর, গুদারাঘাট গ্যাপ, বাড্ডা লিংক রোড ও কালাচাঁদপুর গ্যাপ।

    সড়ক ব্যবহার সংক্রান্ত যেকোনো জরুরি প্রয়োজনে ফোন করুন

    ডিসি (ট্রাফিক গুলশান): ০১৩২০-০৪৪৩৬০, এডিসি (ট্রাফিক গুলশান): ০১৩২০-০৪৪৩৬১, এসি (গুলশান ট্রাফিক জোন): ০১৩২০-০৪৪৩৭২, এসি (মহাখালী ট্রাফিক জোন): ০১৩২০-০৪৪৩৭৫ ও এসি (বাড্ডা ট্রাফিক জোন): ০১৩২০-০৪৪৩৭৮।

    আইনশৃঙ্খলা বজায় রাখার লক্ষ্যে যানবাহন চলাচলের উপযুক্ত ব্যবস্থা বাস্তবায়নকালে নগরবাসীর সর্বাত্মক সহযোগিতা কামনা করেছে ডিএমপি।

    মাহফুজা ৩১-১২

     

    আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
    আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে পাশে থাকুন

    Latest Posts

    spot_imgspot_img

    আলোচিত খবর