১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
৩রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
৯ই জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

    সর্বশেষ খবর

    বাস মালিক সমিতির ডাকে সিলেট বিভাগের তিন জেলায় পরিবহন ধর্মঘট চলছে

    বাস মালিক সমিতির ডাকে সিলেট বিভাগের তিন জেলায় পরিবহন ধর্মঘট চলছে। বিএনপির সিলেট  বিভাগীয় মহাসমাবেশের ঠিক আগের দিন এই ধর্মঘট পালন করছেন পরিবহন মালিক সংগঠনগুলো। তবে আন্জুমানে হেফাজতে ইসলাম’ এর ইজতেমা চলায় সিলেট  ধর্মঘটের আওতায় নেই। আগামীকাল এ জেলার পরিবহন শ্রমিকরা ধর্মঘটে যোগ দেবেন বলে জানান নেতারা।

    পরিবহন মালিক শ্রমিক ঐক্য পরিষদ শুক্রবার ভোর ৬টা থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য পরিবহন ধর্মঘট শুরু করেছেন । এতে চরম ভোগান্তিতে পড়েন যাত্রীরা। ধর্মঘটে হবিগঞ্জ থেকে সকালে দূরপাল্লার কোনো পরিবহন ছেড়ে যায়নি এবং অভ্যন্তরীণ রাস্তাগুলোতেও যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। এতে দুর্ভোগে পড়েছেন শত শত যাত্রী।

    হবিগঞ্জ মোটর মালিক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক শঙ্খ শুভ্র রায় বলেন, নবীগঞ্জ রোডের সালামতপুর বাসস্ট্যান্ডে তাদের গাড়ি নিয়ে যেতে চাইলে প্রশাসনের বাধা দেয় । এর প্রতিবাদেই তারা মূলত ধর্মঘটের ডাক দিয়েছেন এবং সিএনজি চালিত অটোরিকশা বন্ধসহ বিভিন্ন দাবিতে তারা ধর্মঘট করছেন। তিনি আরও বলেন, দাবি না মানার আগ পর্যন্ত ধর্মঘট চলবে।

    এদিকে সুনামগঞ্জেও চলছে বাস মালিক সমিতির ডাকে পরিবহন ধর্মঘট। সকাল থেকে সব ধরনের পরিবহন চলাচল বন্ধ রয়েছে এ জেলায়।

    মৌলভীবাজারেও পরিবহন ধর্মঘটে সাধারণ লোকজন পড়েছেন চরম ভোগান্তিতে।

    ধর্মঘট চলায় বৃহস্পতিবার রাত থেকেই বিএনপির নেতাকর্মীরা সমাবেশ স্থলে আসতে শুরু করেছেন। সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি দেওয়ান জয়নুল জাকেরীন বলেন, ধর্মঘট আর পুলিশের ভয় দেখিয়ে আমাদের সমাবেশে যাওয়া বন্ধ করা যাবে না। যে কোনোভাবেই আমরা সিলেটে গিয়ে পৌঁছাব।

    সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম বলেন, আমাদেরও বাধা দিতে ধর্মঘটের ডাক দেওয়া হয়েছে।

    বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির বলেন, ‘গণসমাবেশে বাধা দিতেই পরিবহন মালিকদের চাপ সৃষ্টি করে ধর্মঘট আহ্বান করানো হয়েছে। তবে এতে সমাবেশে কোনো প্রভাব পড়বে না।

    সিলেট জেলা বাস মালিক সমিতির সভাপতি আবুল কালাম বলেন, আমরা কারো সমাবেশে বাধা দিতে ধর্মঘট ডাক দেইনি এবং এটা আমাদের পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচী।

    সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার নিশারুল আরিফ বলেন, জনগণের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণে পুলিশ তৎপর রয়েছে এবং কোথাও জনস্বার্থ বিঘ্নিত ঘটলে পুলিশ ব্যবস্থা নেবে।

    মাহফুজা ১৮-১১

    আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
    আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে পাশে থাকুন

    Latest Posts

    spot_imgspot_img

    আলোচিত খবর