২১শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
৬ই অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
১০ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

    সর্বশেষ খবর

    কাজী নজরুল ইসলামের ৪৬তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

    জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ৪৬তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ । তিনি ১৯৭৬ সালের ২৭ আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় -বিএসএমএমইউ হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন । ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদের পাশে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সমাহিত করা হয় কবিকে।

    দেশের শিল্পী-সাহিত্যিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলো কবির মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে । কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে, কবির সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ, ফাতেহা পাঠ, দোয়া মাহফিল, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

    শনিবার ২৭ আগস্ট বিকেলে  কবি নজরুল ইনস্টিটিউট ধানমন্ডির রবীন্দ্র সরোবরে আলোচনা সভা এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান করবে । কবির মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বাংলাদেশ বেতার, টেলিভিশন ও বিভিন্ন বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল বিশেষ অনুষ্ঠানমালা সম্প্রচারের উদ্যোগ নিয়েছে।

    কবি নজরুল ইসলাম ১৮৯৯ সালের ২৪ মে বা ১৩০৬ বঙ্গাব্দের ১১ জ্যৈষ্ঠ জন্মগ্রহণ করেন পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমানের  চুরুলিয়া গ্রামে । ছোটবেলায় দুখু মিয়া’ ছিল  তার ডাকনাম । ‘বাবার নাম কাজী ফকির আহমেদ ও মা জাহেদা খাতুন।

    বিদ্রোহী কবি হিসেবে পরিচিত হলেও তিনি কবিতা, সংগীত, উপন্যাস, গল্প, নাটক, প্রবন্ধ, নিজের অবদান রেখেছেন। প্রেম, দ্রোহ, সাম্যবাদ ও জাগরণের কবি কাজী নজরুল ইসলামের কবিতা ও গান শোষণ-বঞ্চনার বিরুদ্ধে সংগ্রাম করতে জাতিকে উদ্বুদ্ধ করেছে। মুক্তিযুদ্ধে তার গান ও কবিতা ছিল প্রেরণার উৎস। নজরুলের কবিতা, গান ও সাহিত্য কর্ম নবজাগরণ সৃষ্টি করেছিল বাংলা সাহিত্যে। লেখকদের মধ্যে অসাম্প্রদায়িক চেতনার পথিকৃৎ তিনি ছিলেন ।

    ১৯৭২ সালের ২৪ মে স্বাধীন তৎকালীন রাষ্ট্রপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের উদ্যোগে ভারত সরকারের অনুমতিতে কবি নজরুলকে ঢাকায় আনা হয়। দেয়া হয় তাকে জাতীয় কবির মর্যাদা। বাংলা সাহিত্য ও সংস্কৃতিতে অবদানের জন্য ১৯৭৪ সালের ৯ ডিসেম্বর ঢাবির বিশেষ সমাবর্তনে কবিকে সম্মানসূচক ডি-লিট উপাধি দেয়া হয় এবং  একই বছরের ২১ ফেব্রুয়ারি কবি ভূষিত হন একুশে পদকে ।

    মাহফুজা ২৭

    আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
    আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে পাশে থাকুন

    Latest Posts

    spot_imgspot_img

    আলোচিত খবর