জানুয়ারি ২৬, ২০২১ ৮:৫০ পূর্বাহ্ণ ||১৩ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ||১২ই জমাদিউস-সানি, ১৪৪২ হিজরী

ছোট ভাইকে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির করিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন দুই ভাই-ই

শনিবার (১৯ ডিসেম্বর) ভোরে জয়পুরহাট সদরের পুরানাপৈলে ট্রেনের ধাক্কায় ভয়াবহ বাস দুর্ঘটনায় পাঁচবিবি উপজেলার আটুল গ্রামের আপন দুই ভাই সরোয়ার হোসেন (৪০) ও আরিফুর রহমান রাব্বি (২০)   মারা গেছেন।

তাদের বাবা একজন পল্লী চিকিৎসক, নাম আলতাফ হোসেন । আলতাফ হোসেনের এই দুই ছেলে ছাড়া আর কোন সন্তান নেই।  দুই ছেলেকে হারানো মধ্য দিয়ে সব স্বপ্নই শেষ হয়ে গেলো তার। তিনি এখন নিঃসন্তান হয়ে গেলেন।  দুই ছেলেকে হারিয়ে পল্লী চিকিৎসক বাবা শোকে পাগলপ্রায়।

দুই ছেলেকে হারিয়ে বাবা আলতাফ ও মা আম্বিয়া খাতুন বার বার মূর্ছা যাচ্ছিলেন।  সান্ত্বনা দিতে আসা গ্রামবাসীরাও নির্বাক। এ গ্রামের ছালেহা বেগম, মাহমুদুল ইসলাম, আনোয়ার হোসেন মাস্টার, মামুনুর রশিদ ও সোহেল জানান, আলতাফ ও আম্বিয়া খাতুনের মাত্র দুই সন্তানই। সুখি পরিবারে এখন বিশাদের  ছায়া, সন্তান শোকে বাবা আর মা’র যে কি হবে তা উপরওয়ালা ছাড়া আর কেউ বলতে পারবে না।

বাবা আহাজারি করতে করতে জানালেন, বড় ছেলে সারোয়ার গ্রামীন পশু চিকিৎসক আর বাবা আলতাফ পল্লী চিকিৎসক আর ছোট ছেলে রাব্বী সবে এইচএসসি পাশ করেছেন।   একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং এর উপর ডিপ্লোমা কোর্সে ভর্তির জন্য ছোট ভাই রাব্বীকে সঙ্গে নিয়ে বড় ভাই সরোয়ার গত বুধবার ঢাকা যান।  ভর্তি শেষে দুই ভাই রাতে ঢাকা থেকে নৈশ কোচে বাড়ির উদ্দেশ্যে জয়পুরহাট জেলা শহরে পৌছেন।  পরে হিলি গামী বাঁধন নামের বাসে চড়ে পাঁচবিবি যাওয়ার পথে দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারান।

শনিবার (১৯ ডিসেম্বর) ভোরের এই দুর্ঘটনায় ১০ জন যাত্রী  ঘটনাস্থলেই নিহত হন।  হাসপাতালে নেওয়ার পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান আরো ২ জন।  আহত হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছেন আরো ৩ বাসযাত্রী।

About Md Uzzal