ডিসেম্বর ১, ২০২০ ৭:০৯ অপরাহ্ণ ||১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ||১৫ই রবিউস-সানি, ১৪৪২ হিজরী
সংগৃহীত

দাফনের সময় নড়ে ওঠা শিশু মরিয়ম মারা গেছে

কবর থেকে বেঁচে ফেরা শিশু মরিয়মকে অবশেষে। বাচাঁনো গেলনা । ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নবজাতককে মৃত ঘোষণা পর দাফনের সময় নড়েচড়ে ওঠা শিশু মরিয়ম মারা গেছে বুধবার রাত সাড়ে ১১টায়  । শিশু মরিয়মের বাবা ইয়াসিন মোল্লা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে ঢাকা মেডিকেলের এনআইসিইউতে ভর্তি ছিল ওই শিশুটি। তার অবস্থা প্রথম থেকেই আশঙ্কাজনক ছিলো বলে জানিয়েছিলেন চিকিৎসকরা। শুক্রবার ভোরে ঢামেকের গাইনি বিভাগে শাহিনুর বেগম নামের এক গৃহবধূ কন্যা সন্তানের জন্ম দেন। চিকিৎসকরা জানান বাচ্চাটির মৃত অবস্থায় জন্ম হয়েছে।

সন্তানকে পৃথিবীর আলো দেখাতে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন শাহেনূর বেগম। কিন্তু ডাক্তারদের দায়িত্বে অবহেলায় প্রিয় সন্তানটি এখন মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করছে। জীবিত নবজাতককে মৃত ঘোষণা করায় চিকিৎসকদের প্রতি ক্ষোভের শেষ নেই মায়ের। ডাক্তারদের দায়িত্বে অবহেলায় প্রিয় সন্তানটি শেষ চিকিৎসা দিয়েও আর বাঁচানো গেল না।

শিশু মরিয়মের বাবা ইয়াসিন বলেন, এরপর হাসপাতালের আয়া বাচ্চাটিকে প্যাকেট করে বেডের নিচে রেখে দেন এবং কোথাও নিয়ে দাফন করার জন্য বলেন। রায়েরবাজার বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে কবর খোঁড়া যখন প্রায় শেষ পর্যায়ে, তখন কান্নাকাটি শব্দ শুনতে পান তিনি। আশপাশে কোথাও কিছু না পেয়ে পরে পাশে রাখা নবজাতকটির দিকে খেয়াল করেন। এরপর প্যাকেট খুলে দেখেন বাচ্চাটি নড়াচড়া করছে, কান্নাকাটি করছে।

 

এদিকে জীবিত নবজাতককে মৃত ঘোষণার ঘটনাকে দুঃখজনক মন্তব্য করেছেন  ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালের পরিচালক। তিনি জানান, তদন্ত রিপোর্টে উঠে আসবে প্রকৃত ঘটনা। ১৬ অক্টোবর শাহেনূর বেগম শিশু মরিয়মকে জন্ম দেওয়ার পর ডাক্তাররা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। কিন্তু দাফনের সময় কেঁদে উঠলে জানা যায় শিশুটি জীবিত।

About Md Uzzal