জুলাই ৫, ২০২০ ১:০০ অপরাহ্ণ ||২১শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ||১৩ই জিলক্বদ, ১৪৪১ হিজরী

বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপের সেমিফাইনালে বাংলাদেশ

বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপে বাঁচা মরার লড়াইয়ে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৩-০ গোলে জয় পেয়ে সেমিফাইনালে উঠল বাংলাদেশ।গতবারের মতো এবারও সেমিফাইনালে জায়গা করে নিলো জেমি ডের শীর্ষরা। আগামী ২৩ জানুয়ারি ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে পূর্ব আফ্রিকার দল বুরুন্ডি মুখোমুখি হতে হবে বাংলাদেশকে ।

বাংলাদেশ শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে খেলেছে একাদশে চার পরিবর্তন এনে। অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া উরুর চোটের কারণে নেই। অভিজ্ঞ ডিফেন্ডার ইয়াসিন খান জ্বরে পড়েছেন। আর ডিফেন্ডার রায়হান হাসান ও মামুনুল ইসলামকে নেওয়া হয়নি একাদশে।

জামালের জায়গায় অভিষেক হয়েছে চট্টগ্রাম আবাহনীর মিডফিল্ডার মানিক হোসেন মোল্লার। এ ছাড়া একাদশে ফিরেছেন বিশ্বনাথ ঘোষ ও রিয়াদুল হাসান। ফিলিস্তিনের ম্যাচে বদলি হিসেবে নামা মাহবুবুর রহমান সুফিল খেলেছেন শুরু থেকে।

চার পরিবর্তন নিয়ে বাংলাদেশ খারাপ করেনি। অনেকদিন পর বাংলাদেশ ছক বদলে মাঠে নেমেছে। ৪-১-৪-১ বদলে এদিন তা ৪-৪-২। সুফিল ও মতিন জুটি বেঁধে নেতৃত্ব দিয়েছেন আক্রমণে।

বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে ম্যাচের শুরুর দিকে চার মিনিটের সময় মাথায় আঘাত পেয়ে ব্যান্ডেজ নিয়ে খেলেছেন রিয়াদুল হাসান। প্রতিপক্ষের সঙ্গে সংঘর্ষে মাথা ফেটে যায় এই ডিফেন্ডারের। বল দখলের লড়াইয়ে এগিয়ে থাকা বাংলাদেশ ১০ মিনিটের সময় প্রথম সুযোগ পায়। তবে ইব্রাহিমের ক্রসে সাদ উদ্দিন লক্ষ্যে শট নিতে পারেননি।

বাংলাদেশ এগিয়ে যায় ১৬ মিনিটেই । মানিক মোল্লার থ্রু থেকে বক্সে থাকা মতিন মিয়া বাঁ পায়ে বল নিয়ন্ত্রণ করে ডান পায়ের জোরালো শটে লক্ষ্যভেদ করেন। জাতীয় দলে এটাই তার প্রথম গোল।

২১ মিনিটে মোহাম্মদ ইব্রাহিম ‘স্বার্থপরের মতো’ গোলের সুযোগ নষ্ট করেছেন। বাঁ প্রান্তে থেকে নিজেই গোল করতে গিয়ে লক্ষ্যে শট নিতে পারেননি। অথচ ডান দিকে ফাঁকায় থাকা সুফিলকে পাস বাড়ালে হয়তো দ্বিতীয় গোল হতো।

বিরতির পরও বাংলাদেশ ছিল আক্রমণাত্মক মেজাজে। ৫১ মিনিটে সোহেল রানা বক্সে ঢুকে ক্রসবারের ওপর দিয়ে বল মারেন। মাঝে শ্রীলঙ্কাও গোল শোধের চেষ্টা করেছে। কিন্তু সফল হতে পারেনি। ৫৮ মিনিটে জোহার মোহাম্মদ জারওয়ানের শট ক্রসবারের ওপর দিয়ে যায়।

এর পাঁচ মিনিট ব্যবধান দ্বিগুন করে ফেলে বাংলাদেশ। একক প্রচেষ্টায় দুর্দান্ত গোল করেছেন মতিন। মাঝমাঠ থেকে জুদে সোপানের কাছ থেকে বল কেড়ে নিয়ে বাঁদিক দিয়ে আক্রমণে ওঠা ফরোয়ার্ড ঝড়ো গতিতে ঢুকে পড়েন বক্সে। এরপর আগুয়ান গোলকিপারকে কাটিয়ে নিঁখুত টোকায় জালে জড়িয়েছেন বল।

৭০ মিনিটে সোহেল রানার শট গোলকিপার ঝাঁপিয়ে রুখে না দিলে ব্যবধান তখনই ৩-০ হয়ে যায়।তবে সেটি হয়েছে ৮৩ মিনিটে। মানিকের পর এই ম্যাচে আরেক অভিষিক্ত রাকিব হোসেনের পাস থেকে আলতো টোকায় গোল করেছেন ইব্রাহিম।

এই ম্যাচে অধিনায়কত্ব করা ডিফেন্ডার তপু বর্মণ লাল কার্ড দেখে মাঠ ছেড়েছেন। তবে ১০ জনের দলে পরিণত হয়েও বাংলাদেশ ঝিমিয়ে পড়েনি, আক্রমণাত্মক মেজাজেই শেষ করেছে ম্যাচ।

বাংলাদেশ দল: আশরাফুল রানা, রহমত মিয়া, তপু বর্মণ, সাদ উদ্দিন, মতিন মিয়া, সোহেল রানা, বিশ্বনাথ ঘোষ, মোহাম্মদ ইব্রাহিম (সুশান্ত ত্রিপুরা), রিয়াদুল হাসান, মানিক মোল্লা (রাকিব হোসেন) ও মাহবুবুর রহমান (মামুনুল)।

 

About Md Uzzal