নভেম্বর ১৪, ২০১৯ ৯:৩৬ পূর্বাহ্ণ ||২৯শে কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ||১৬ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরী

ধর্ষণের অভিযোগে বানারীপাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান আ.লীগ থেকে বহিস্কার

 

বরিশালের বানারীপাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য এবং উপজেলার সিনিয়র সহ-সভাপতি গোলাম ফারুককে দল থেকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে।

রোববার দুপুরে জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয় থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি জানানো হয়।

বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট তালুকদার মো. ইউনুস বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, গোলাম ফারুকের বিরুদ্ধে ঢাকার ভাটারা থানায় সম্প্রতি একটি ধর্ষণ মামলা হয়েছে। এটা দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের পর্যায়ে পড়ে। এ নিয়ে আজ (রোববার) দুপুরে জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তাকে দল থেকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত গত বৃহস্পতিবার (২৪ অক্টোবর) বরিশালের বানারীপাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান ও বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য গোলাম ফারুকের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনে ঢাকার ভাটারা থানায় এক তরুণী মামলা করেন।
এতে উল্লেখ করা হয়, তার বাসা রাজধানীর পল্লবী এলাকায়। সেখানে একটি বিউটি পার্লারে কাজ করেন। গ্রামের বাড়ি বরিশালে। গোলাম ফারুকের গ্রামের বাড়ি বানারীপাড়ার ডান্ডোয়াটে। রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় তার নিজস্ব ফ্ল্যাট রয়েছে। মাঝে-মধ্যে বানারীপাড়া থেকে এসে ওই ফ্ল্যাটে ওঠেন ফারুক।

পুলিশ জানিয়েছে, গত মাসের শুরুতে মেয়েটির মোবাইল ফোনে অজ্ঞাত নম্বর থেকে কল আসে। অপরিচিত নম্বর হওয়ায় তিনি ফোনের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেন। তারপরও একই নম্বর থেকে কল করা হতো তাকে। এরপর তাদের মধ্যে শুরু হয় যোগাযোগ, যা পরবর্তীতে প্রেমের সম্পর্কে গড়ায়।

মামলায় ওই তরুণীর আরও অভিযোগ করেন, বিয়ের প্রলোভনে বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার ফ্ল্যাটে নিয়ে গোলাম ফারুক তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করেছেন। সম্প্রতি বিয়ের জন্য চাপ দিলে নানা কৌশলে এড়িয়ে যান তিনি।

এ ব্যাপারে ভাটারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোক্তারুজ্জামান জানান, গোলাম ফারুক নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা হয়েছে (মামলা নম্বর ৪৬)। মামলাটি তদন্ত করছেন ভাটারা থানার এসআই রিয়াদ আহমেদ। মামলার তদন্ত চলছে। তদন্তে বিষয়টি স্পষ্ট হবে।

About Md Uzzal