October 15, 2019 5:59 AM

বাড়িতে ডেকে এনে পুরুষদের বিবস্ত্র  ছবি তুলতো এ  নারীরা(ভিডিওসহ)

স্টাফ রিপোর্টার, নওগাঁ।।

নওগাঁ সদরে প্রেমের ফাঁদে ফেলে বিবস্ত্র করে ছবি তোলেএরপর মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেয়া প্রতারকএমন চক্রের চার নারীসহ আটজনকে আটক করেছে পুলিশশনিবার ভোর রাতে সদরের পারনওগাঁর দক্ষিণপাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়

আটককৃতরা হলেন, নওগাঁ সদরের ফতেপুর গ্রামের হারুন মন্ডল, পারনওগাঁর আরিফ হোসেন, নূর ইসলাম নোবেল, মো. আশিক, শান্তা খাতুন, নিপা খাতুন, সন্ধ্যা খাতুন এবং বগুড়া উপজেলার আদমদিঘীর রিয়া খাতুন

পুলিশ জানায়, প্রতারক চক্রের নারী সদস্যরা ধনাঢ্য পরিবারের সদস্যদের টার্গেট করে প্রেমের ফাঁদে ফেলতো। আর যুবকরা বিভিন্ন কৌশলে তাদের মোবাইল নাম্বার সংগ্রহ করে নারী সদস্যদের দিত। তারা ওইসব নম্বারে মিসকল দিয়ে কথার ছলে প্রথমে বন্ধুত্ব করতো। এরপর এ সম্পর্ককে আরও একধাপ এগিয়ে নিতে প্রেমের প্রস্তাব এবং বাড়িতে আমন্ত্রণ জানাতো। এই চক্র বেশ কিছুদিন ধরে নওগাঁ শহরের বিভিন্ন এলাকায় বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস করে এই অপকর্ম করে আসছিল।

এমন ফাঁদে জড়িয়ে পড়েন নওগাঁ শহরের বাঙ্গাঁবাড়িয়া মহল্লার শিউলী ম্যানসনের চতুর্থ তলায় ভাড়া থাকাকালীন সময় মঙ্গলপুর গ্রামের রফিকুল ইসলাম। রফিকুল ইসলামকে ওই চক্র কৌশলে মোবাইলে ফাঁদে ফেলে বাড়িতে ডেকে নিয়ে নগদ ৫০ হাজার টাকা আদায় করে। এছাড়া ৮ লাখ টাকা দাবি করে সাদা স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নিয়ে ছেড়ে দেয়। এ ব্যাপারে থানায় একটি মামলাও রয়েছে। পুলিশ তাদের বহুদিন ধরে খুঁজছিল।

সবশেষ সদরের পার-নওগাঁর দক্ষিণপাড়ার এলাকার এক ব্যবসায়ীকে  প্রেমের ফাঁদে ফেলে এই চক্রের এক নারী। এরপর ওই লোকটিকে ওই বাসায় নিয়ে গিয়ে বিবস্ত্র করে ছবি তুলে। এরপর ৮০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। দাবিকৃত টাকা না দিলে ওই নগ্ন ছবি ইন্টারনেটে ছেড়ে দেয়ার ভয় দেখায়। এরপর ওই লোকটির লোকজন থানায় সংবাদ দিলে পুলিশ টাকা দেয়ার জন্যে সাদা পোশাকে গিয়ে সদরের পার-নওগাঁর দক্ষিণপাড়া এলাকায় একটি বাসায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে।

About