জুন ৩, ২০২০ ৫:৫২ পূর্বাহ্ণ ||২০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ||৯ই শাওয়াল, ১৪৪১ হিজরী

খুলনায় মিঠু হত্যার প্রতিবাদে বিএনপির হরতাল চলছে

খুলনা জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও ফুলতলা উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান সরদার আলাউদ্দিন মিঠু হত্যার প্রতিবাদে বিএনপি ডাকে অর্ধদিবস হরতাল ঢিলেঢালাভাবে পালিত হচ্ছে।
হরতালে দোকান পাট বন্ধ থাকলেও যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। শনিবার (২৭ মে) সকাল ৯টায় বিএনপি ও অংঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মীরা মহানগরীর পিটিআই মোড় থেকে পুলিশ প্রহরায় কালো পতাকা মিছিল বের করে। মিছিলটি রয়েল চত্বর, ফেরিঘাট মোড়, ডাকবংলা হয়ে কেডি ঘোষ রোডে অবস্থিত বিএনপি কার্যালয়ে শেষ হয়।
পরবর্তীতে ১০টায় শুরু হওয়া প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তৃতা করেন মহানগর বিএনপির সভাপতি ও সাবেক এমপি নজরুল ইসলাম মঞ্জু, সাধারণ সম্পাদক সিটি মেয়র মো. মনিরুজ্জামান, জেলা বিএনপির সভাপতি শফিকুল আলম মনাসহ অন্যান্য নেতারা।
এসময় বক্তারা বলেন, পরিকল্পিত এ হত্যাকাণ্ড যারা ঘটিয়েছে তাদেরকে পুলিশ চেনে। তারা তাদের আশ্রয়ে-প্রশয়েই আছে। বক্তারা নিহতের পরিবারের নিরাপত্তা দাবি করেন।
উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার (২৫ মে) রাত সোয়া ১০টার দিকে নিজ অফিসে খুলনা জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সরদার আলাউদ্দিন মিঠু (৪৫) ও তার দেহরক্ষী নওশের গাজীকে (৪২) গুলি করে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। এর আগে ১৯৯৮ সালে মিঠুর বাবা সরদার আবুল কাসেমকে হত্যা করা হয়। এরপর ২০১০ সালে এ পরিবারের আরেক সদস্য মিঠুর বড় ভাই সরদার আবু সাইদ বাদলকেও হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। এ ধারাবাহিক হত্যার সর্বশেষ শিকার হন মিঠু। আবুল কাসেম ও আবু সাইদ উপজেলার দামোদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ছিলেন। খুলনা জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও ফুলতলা উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মিঠু ছিলেন উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান।

About uzzal uzzal