এপ্রিল ৩, ২০২০ ৪:৩৪ অপরাহ্ণ ||২০শে চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ||৯ই শাবান, ১৪৪১ হিজরী

প্রেমিকার সঙ্গে প্রতারণা করায় যুবলীগ নেতা বহিষ্কার

টাঙ্গাইলের বাসাইল উপজেলা যুবলীগের সদস্য শাকিল রানা সচিবকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। বিয়ের দাবিতে ওই যুবলীগ নেতার বাড়িতে প্রেমিকার অনশনের ঘটনায় শাকিল রানা সচিবকে টাঙ্গাইল জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ফারুক হোসেন মানিক এ বহিষ্কারের নির্দেশ দেন। এ নির্দেশের প্রেক্ষিতে গত ২২ মে উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মিজানুর রহমান মিজান স্বাক্ষরিত এক পত্রে শাকিল রানা সচিবকে বহিষ্কার করা হয়।

এ প্রসঙ্গে বাসাইল উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক মশিউর রহমান খান বিদ্যুৎ শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টায় জানান, বিতর্কিত কর্মকাণ্ডের অভিযোগ এবং দলীয় ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হওয়ায় জেলা যুবলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নির্দেশে শাকিল রানা সচিবকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। শাকিল রানা সচিবকে বহিষ্কার আদেশের পত্রটি পাঠানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, ফুলকি পশ্চিমপাড়ার এমডি মাসুদ রানা মান্নানের ছেলে উপজেলা আওয়ামী যুবলীগ নেতা শাকিল রানা সচিব ফেসবুকের মাধ্যমে আড়াই বছর আগে সখীপুর উপজেলার হতেয়া গ্রামের সিদ্দিকুর রহমান মাস্টারের মেয়ে করটিয়া সা’দত বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের চূড়ান্ত পর্বের ছাত্রী পারুল আক্তারের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন। ফেসবুক ও মোবাইল ফোনে দীর্ঘদিন কথোপকথনের পর গত এক বছর আগে তাদের সাক্ষাৎ হয়।

সাক্ষাতের পর তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক আরও গভীর হয়। মেয়েটির দাবি এক পর্যায়ে শাকিল রানা তাকে বিয়ে করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে স্ত্রীর পরিচয়ে ঢাকার আবাসিক হোটেলে নিয়ে গিয়ে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হয়। এরপর বিভিন্ন সময় বিভিন্ন স্থানে নিয়ে গিয়ে তারা একাধিকবার শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হয়।

কিন্তু শাকিলের প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী মেয়েটি বিয়ে করার কথা বললে, শাকিল তা অস্বীকার করে। শাকিলের এমন প্রতারণামূলক সিদ্ধান্তের কারণে সর্বস্ব হারানো মেয়েটি কোনো উপায়ান্তর না পেয়ে গত ৮ মে সকাল ৭টার দিকে শাকিলের বাড়িতে অবস্থান নিতে বাধ্য হয় বলে জানান তিনি।

আলোচিত খবর/ম.ই

About uzzal uzzal