এপ্রিল ৩, ২০২০ ৪:৫৯ অপরাহ্ণ ||২০শে চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ||৯ই শাবান, ১৪৪১ হিজরী

উত্তরপত্র অন্যকে দিয়ে মূল্যায়ন করতে দেয়া সেই দু’শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) মন্নুজান হল থেকে উচ্চ মাধ্যমিকের উত্তরপত্র উদ্ধারের ঘটনায় রাজশাহীর দুই কলেজ শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের প্রধান পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক তরুণ কুমার সরকার বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার রাতে নগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানায় এ মামলা করেন।১৯৮০ সালের পাবলিক পরীক্ষা অপরাধ আইনে মামলাটি দায়ের করা হয়। তবে পুলিশ এখনও কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি।

মামলার আসামিরা হলেন, নগরীর নিউ গর্ভমেন্ট ডিগ্রি কলেজের ইসলামের ইতিহাস বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. আবুল কালাম ও শাহ মখদুম কলেজের প্রভাষক মাসুদুল হাসান।বোয়ালিয়া থানার এসআই সোলাইমান হক জানান, রাতে মামলাটি (নং-৭১) রেকর্ড করা হয়েছে। তবে এখনও কাউকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি।

রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক তরুণ কুমার সরকার বলেন, ‘বোর্ড কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তে বৃহস্পতিবার রাতে বোয়ালিয়া থানায় এজহার দিয়ে এসেছি। তা মামলা আকারে রেকর্ড হয়েছে কিনা তা আমাকে জানানো হয়নি।’

উল্লেখ্য, গত ২২ মে মন্নুজান হলে তল্লাশি চালিয়ে চলতি বছরের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার ইসলামের ইতিহাস কোর্সের (২৬৮) ১০০ উত্তরপত্র উদ্ধার করে রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড কতৃপক্ষ।খাতাগুলো মূল্যায়নে দায়িত্বপ্রাপ্ত পরীক্ষক ছিলেন রাজশাহী নিউ ডিগ্রি গভমেন্ট কলেজের সহকারী অধ্যাপক ড. আবুল কালাম।

জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, তিনি নিজে মূল্যায়ন না করে নগরীর শাহ মখদুম কলেজের কলেজের প্রভাষক মাসুদুল হাসানকে দেন। আরও দুই হাত ঘুরে তা রাবির দ্বিতীয় বর্ষের এক ছাত্রীর হাতে যায়।মাসুদুল হাসান এমপি থ্রি নামক কোচিং ও প্রকাশনীর রাজশাহী শাখার পরিচালক।

এ ঘটনায় শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে অভিযুক্ত শিক্ষক আবুল কালামকে ওএসডি করা হয়েছে। আর বোর্ড কর্তৃপক্ষ ২৩ মে রাজশাহী কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক হবিবুর রহমানকে প্রধান করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। ওই কমিটিকে ৭ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

আলোচিত খবর/ম.ই

About uzzal uzzal